কয়দিন ধরে ভাবছি কি করা যায়, এবং কিভাবে কি করা যায় এটা ঠিক করা যায়! এই ভাবনার একটা কারন আমার এক শিক্ষকের প্রশ্নঃ উনি জিগাইলেন- জীবনে কি করতে চাও। আমি বলিলামঃ এখনও ঠিক করি নাই। এই উত্তর হতাশাজনক। আর যদি কোন বিবিএ পাশ করা পোলায় কয় তাইলে, এইডা একখান পাপ! তখন থেইকা ভাবছি কি করা যায় এটা কেমনে ঠিক করা যায়।

এই ভাবনার আরো একটা কারন হলোঃ আমি কি কি করব না এগুলা মোটামোটি ঠিক করে ফেলেছি। এখন খালি একটা বাকি। আমি যে পদ্ধতি ব্যবহার করা শুরু করেছি তা হলঃ

১। ঠিক করেন আপনি কি করতে চান না।এটা আপনার পছন্দগুলো কমিয়ে আনবে এবং সিদ্ধান্ত নেয়া সহজ করে দেবে

২। যা কিছু করতে মন চায় তাই করতে চেষ্টা করেন! যেসব কাজ ভালোবাসা থেকে মানুষ করে সেটাতে খুব বেশি ভালো করার প্রবণতা বেড়ে যায় ।

৩। যা কিছু করতে ভয় লাগে তা করা ফরজ, মানে অবশ্য করণীয়। যে সব কাজ করতে আপনি সবচেয়ে অসহায় বোধ করেন তা করলেই আপনি সব থেকে ভাল এবং বেশি কিছু শিখতে পারবেন। আর শিক্ষাটা বেঁচে থাকার জন্যে জরুরি!

যখনি আপনি কোন কিছু করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন উপরের অপশান গুলা ভাবুন। সহজ আর আরামদায়ক কিছু থেকে আপনি ভাল ফল আশা করতে পারেন না। যা কিছু মহান আর চির কল্যানকর তার প্রায় সবটাই খুবই ঝুঁকিপূর্ণ  আর কষ্টসাধ্য। ভাল কিছু করতে চাইলে আপনাকে বেছে নিতে হবে যা আপনি কখনো করেন নি, যা করতে আপনার ভয় করে, যা থেকে আপনি ভাল কিছু শিখতে পারবেন।